সর্বশেষ সংবাদ
যে নামেই হোক নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে: খালেদা জিয়া

যে নামেই হোক নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে: খালেদা জিয়া

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, আগামী নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই হতে হবে এমন নয়। যে নামেই হোক না কেন, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে।
গতকাল শনিবার রাতে গুলশানে নিজের কার্যালয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।
বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে মানুষ ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ জানে ক্ষমতা থেকে গেলে তারা আর সহজে ক্ষমতায় আসতে পারবে না। মানুষ তাদের কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। সে জন্য তারা নির্বাচন দিতে চায় না।
খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, সরকার একদলীয় শাসন কায়েম করতে চায়। কিন্তু জোর করে র্যা ব-পুলিশ দিয়ে বেশি দিন ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না। জোর করে ক্ষমতায় থাকলে এর পরিণতি ভালো হয় না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আজীবন ক্ষমতায় থাকার জন্য বিএনপিসহ সব দলকে ধ্বংস করার চেষ্টা করছে। কিন্তু বিএনপিকে শেষ করা যাবে না। বিএনপির শিকড় মানুষের মনে। যত দিন এ শিকড় থাকবে তত দিন বিএনপি টিকে থাকবে।
খালেদা জিয়া আরও অভিযোগ করেন, দেশে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সম্পূর্ণ বন্ধ। বিরোধী পক্ষকে মিটিং-মিছিল করতে দেওয়া হচ্ছে না। দেশকে কারাগারে পরিণত করা হয়েছে। এতে শুধু বিএনপি বা ২০ দলের নয়, সারা দেশেরই ক্ষতি হচ্ছে। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত সদস্যদের উদাহরণ দিয়ে বলেন, এ আইনজীবীরাও নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু যারা দেশের ক্ষমতায়, তারাই অনির্বাচিত। তারা দেশকে শেষ করে দিচ্ছে।
মতবিনিময় সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি আবদুল মান্নান, সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

Share Button
Print This News Print This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Translate »
Free WordPress Themes - Download High-quality Templates